মসজিদ গুলোতে ‘চেয়ার সংস্কৃতি’ বিলুপ্ত হোক!

চেয়ারে বসে নামায এখন কতিপয় মুসল্লির ব্যক্তিত্বের প্রশ্নের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ তিনি এলাকার প্রভাবশালী লোক, বড় টাকাওয়ালা, ভুড়িও সেই অনুপাতে মাশা আল্লাহ! বসে নামায পড়তে তার ব্যক্তিত্বের সঙ্গে যায় না৷ তাই চেয়ারে বসে নামায৷ হায়রে নামাযী! আল্লাহকে সিজদা করতে এসেও ব্যক্তিত্বের প্রদর্শন৷

অথচ মা’যুর ব্যক্তির জন্যে দাঁড়িয়ে নামায পড়তে না পারলে বসে পড়ার কথাই কিতাবাদিতে এসেছে৷ মা’যুরের জন্যে চেয়ারে বসে নামায আদায় করলে যে হবে না, এমনটা বলছি না৷ কিন্তু তাই বলে মসজিদকে গ্যালারিসদৃশ বানানোর এই নতুন প্রবণতা তো ভবিষ্যতে মসজিদ চেয়ারের দখলে চলে যাওয়ারই ইঙ্গিত বহন করছে৷

আচ্ছা রাসূলে আকরাম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কি অসুস্থাবস্থায় চেয়ারে বসে নামায আদায় করেছিলেন? আবুবকর রা, এর পাশে তো তিনি বসেই নামায আদায় করেছিলেন৷ সাহাবায়ে কেরাম কী অসুস্থ হন নাই? বৃদ্ধ হন নাই? কোমড়ে ব্যথা হয় নাই? হলে তাঁরা লাঠির উপর ভর করে দাঁড়াতেন, নতুবা বসে পড়তেন৷ কই? তাঁদের কারো বেলায় তো চেয়ারে বসে নামায আদায়ের কোনো বিবরণ পাওয়া যায় না৷

তাই দৃষ্টিকটু এই চেয়ার সংস্কৃতি বন্ধে ব্যাপকভাবে এ ব্যাপারে নিরুৎসাহ করা এখনই প্রয়োজন৷

Tags: , , , , ,

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *